ক্যাপিটল হিলে হামলা : যেসব প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা ব্যর্থতা নিয়ে

Category : Global | Sub Category : LeadNews Posted on 2021-01-09 05:38:54


ক্যাপিটল হিলে হামলা : যেসব প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা ব্যর্থতা নিয়ে

রাজধানী ওয়াশিংটনে বুধবারের নজিরবিহীন সহিংসতার পর সারাদেশ যখন বিচলিত ও স্তম্ভিত হয়ে আছে তখন গুরুতর কিছু প্রশ্ন উঠছে যে যুক্তরাষ্ট্রের সরকারের একেবারে কেন্দ্রে আইন শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা ভঙ্গের এতো বড় ঘটনা কীভাবে ঘটলো।

অনেকের কাছে এখনো বোধগম্য নয় যে ট্রাম্পের কয়েক হাজার সমর্থক কেমন করে দেশটির ঐতিহাসিক ও রাজনৈতিকভাবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এরকম একটি ভবনের ভেতরে ঢুকে পড়তে সক্ষম হলো- যখন নির্বাচিত আইনপ্রণেতারা সেখানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের বিজয়কে প্রত্যয়ন করার জন্য জড়ো হয়েছিলেন।

সহিংসতার যেসব ছবি ও ভিডিও ফুটেজ পাওয়া গেছে - সেগুলোতে দেখা যাচ্ছে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উন্মত্ত সমর্থকরা ক্যাপিটল হিলের ভেতরে ঢুকে সেখানে ঘুরে ঘুরে কতটা তাণ্ডব চালাতে সক্ষম হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমর্থকদের দেখা গেছে তারা ভবনের ভেতরে ভাঙচুর চালাচ্ছে, ছবি তুলছে, এমনকি অনেকে তাদের এই তাণ্ডবলীলা সোশাল মিডিয়াতেও সরাসরি সম্প্রচার করেছে। অনেকে ভবনের ভেতর থেকে বিভিন্ন জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে গেছে - যেগুলোকে মার্কিন গণতন্ত্রের প্রতীক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

টেলিভিশনে এবং অনলাইন মিডিয়াতে এই আক্রমণের খবর সারা বিশ্বে প্রচার হওয়ার সাথে সাথে অনেকেই সেখানে মোতায়েন থাকা ক্যাপিটল পুলিশ বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

ভবনটির নিরাপত্তার জন্যে সেখানে প্রায় দুই হাজার সদস্যের একটি বাহিনী ক্যাপিটল পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়।

প্রশ্ন উঠেছে: এই বাহিনীর নিরাপত্তা ভেদ করে ট্রাম্পের সমর্থকরা কীভাবে ভেতরে ঢুকতে সক্ষম হলো। আক্রমণের সময় তারা তা প্রতিহত করার জন্য কতটা চেষ্টা করেছিল।

এই আক্রমণের সময় কয়েকজন আইন প্রণেতাকে দরজার পেছনে লুকাতে এবং মেঝেতে শুয়ে পড়তে দেখা গেছে। পরে পুলিশ এসে তাদেরকে গ্যাসমাস্ক পরিয়ে সেখান থেকে উদ্ধার করে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যায়। গোটা ভবন ও তার আশপাশের এলাকা থেকে দাঙ্গাবাজদের সরিয়ে জায়গাটিকে পুনরায় নিরাপদ ঘোষণা করে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নিতে নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েক ঘণ্টা সময় লেগেছিল। কিন্তু স্পর্শকাতর এরকম একটি ভবনে নিরাপত্তা লঙ্ঘনের এত বড় একটি ঘটনার পর এখনো পর্যন্ত মাত্র গুটিকয়েক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Leave a Comment: